শিরোনাম :
শেষ ষোলোতে প্রতিপক্ষ হিসেবে যাকে পেল আর্জেন্টিনা নাকানি চুবানি খেয়ে লজ্জার হার হেরেও শেষ ষোলোতে পোল্যান্ড, মেক্সিকো-সৌদির বিদায় মেসির পেনাল্টি মিসের দিনে সব সমীকরণ উড়িয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে নকআউটে আর্জেন্টিনা গোটা ফুটবল বিশ্বকে তাক লাগিয়ে বলে কয়ে মেসির পেনাল্টি ঠেকালেন পোলিশ গোলকিপার! বিশ্বকাপ জিতবে আর্জেন্টিনা, মেসির মায়ের বিশ্বাস দুই ওপেনারের দুর্দান্ত জোড়া সেঞ্চুরি, দেখুন বাংলাদেশ ম্যাচের সর্বশেষ ফলাফল মেসিকে নিয়ে এক ভক্তের আবেগঘন পোস্ট যা প্রতিটি মেসি ভক্তের হৃদয় ছুয়ে যাবে, মুহুর্তেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় বিশ্বের বাঘা দুই ক্রিকেটারকে পেছনে ফেলে সূর্যকুমার ও রিজওয়ানকে নতুন রেকর্ড গড়লেন টাইগার লিটন দাস বিশ্বকাপে আবারো অঘটন, বেঞ্চের শক্তি দেখতে গিয়ে তিউনিসিয়ার শিকার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স ব্রেকিংঃ আবারও হাসপাতালে কিংবদন্তি পেলে
বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:৫৭ পূর্বাহ্ন

নামায আয়ূ বৃদ্ধি করিয়া রিযিক স্থিতিশীল করে

মৌমিতা আক্তার / ১১০ বার
আপডেট : শনিবার, ৯ জুলাই, ২০২২
নামায_আয়ূ_বৃদ্ধি_করিয়া_রিযিক_স্থিতিশীল_করে

আল্লাহ তাআলা একাধিকবার কুরআনে অঙ্গীকার করিয়াছেন যে, আমি প্রত্যেক নেক কাজের জন্য দশ হতে সাতশত গুণ পর্যন্ত পুরষ্কার দান করিব। সময় মানুষের অমূল্য সম্পদ। মানব জীবন সময়েরই সমষ্টি।

প্রত্যেক দিন নামাযে যে সময় ব্যয় হয়, অঙ্গীকার মোতাবেক নামাযী মানুষ এই সময়ের জন্য কর্তব্যের নিয়মে অন্ততঃ দশগুণ সময় নিজের আয়ুর সথে যোগ পাওয়ার অধিকারী হয়। এই নিয়মে আয়ু বাড়িয়া থাকে। আল্লাহ কাহারও নিকট কোনো বিষয় ঋনী থাকিতে পারেন না। কেননা, তাঁহার এক নাম ‘ইয়া নাফিউ’ অর্থাৎ হে সুফল দাতা।

আবার নামাযে যে সময় ব্যয় হয় তাহার আর্থিক পূরণ হিসাবে আল্লাহ তাআলা নামাযীর রিযিক বৃদ্ধি ও তাহা নিয়মিত করিয়া দেন, অর্থাৎ নামাযীর জীবনে এমন কখনও হয়না যে, একদিন প্রচুর খাদ্য পাইল এবং তারপর উপবাস করিতে হইল। আয়ু বৃদ্ধির সাথে সাথে রিযিকের যে নিঃসন্দেহে ঘনিষ্ট সর্ম্পক রহিয়াছে তাহা খুলিয় বলার প্রয়োজন হয় না।

নামায মানুষের যৌনশক্তি বৃদ্ধি করে এবং যৌনশক্তির সহিত মানুষের আয়ুর একটি মনিষ্ট সর্ম্পক রহিয়াছে আধুনিক যুগের বৈজ্ঞানিকগণও ইহা স্বীকার করিয়াছেন। মানব দেহে সর্বদা দুইটি বিরুদ্ধ শক্তি বিরাজ করিতেছে। একটি শক্তি দেহকে রক্ষা করিয়া রাখিতেছে ও অন্যটি সর্বদাই দেহকে বিনাশ করার চেষ্টা করিতেছে। দেহে আঘাত পাইলে যে ব্যথা পাওয়া যায়, ইহা ধ্বংসকারী শক্তিরই কর্ম।

সঙ্গমশক্তি এই ধ্বংসকারী শক্তিকে দুর্বল করিয়া রাখার ক্ষমতা রাখে, ইহাই সক্ষম শক্তিশালী মানুষের দীর্ঘায়ু লাভ করার প্রধান কারণ। যাহারা পরকাল ও পরকালের ভাল-মন্দের বিচার সম্পর্কে সন্ধিহান তাহারাই নামাযে অলস হইয়া থাকে। তাহাদের সম্পর্কে হযরত আলী (রাঃ)-এর একটি উপদেশমূলক ঘটনা বর্ণনা করা হইতেছে ঃ একদা হযরত আলী (রাঃ) কোন এক অবিশ্বাসীর সাথে তর্কচ্ছলে বলিয়াছেন, তুমি বলিতেছ যে, পরকাল বলিয়া কিছু নাই, যদি তাহা সত্য হয় তবে তুমিও বাঁচিবে আমিও বাঁচিব।

কিন্তু যদি তাহা না হইয়া আমি যে বলিতেছি, পরকালও আছে এবং পরকালে ভাল-মন্দের বিচারও আছে, তাহা যদি সত্য হয়, তবে আমি বাঁচিব কিন্তু তুমি বাঁচিতে পারিবে না। যাহারা মনে করে যে, পরকালে শাস্তি হইতে পারে, নাও হইতে পারে, তাহাদের বুদ্ধিমানের ন্যায় এই ঘটনা হইতে উপদেশ গ্রহণ করিয়া সতর্ক হওয়া উচিত।


এ জাতীয় আরো সংবাদ

Warning: Undefined variable $themeswala in /home/khandakarit/pratidinerpost.com/wp-content/themes/newsdemoten/single.php on line 229

Warning: Trying to access array offset on value of type null in /home/khandakarit/pratidinerpost.com/wp-content/themes/newsdemoten/single.php on line 229