শিরোনাম :
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:১৭ অপরাহ্ন

“পুতিনের লক্ষ্য কি এবারও ব্যর্থ?”

রিপু / ২৪ বার
আপডেট : রবিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রতিদিনের পোস্ট ||

গত বছরের শেষের দিকে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মিডিয়ার খবরে বলা হয়, ২০২২ সালের শুরুর দিকে ইউক্রেন আক্রমণ করবে রাশিয়া। সে সময়ের বিভিন্ন রিপোর্টের খবর, ইউক্রেন সীমান্তের কাছে হাজার হাজার সেনা ও সরঞ্জাম মোতায়েন করছে রুশ বাহিনী। তবে দেশটি ইউক্রেনে হামলা চালানোর খবর উড়িয়ে দেয়। দাবি করে, নিজেদের ভূখণ্ডে সামরিক মহড়া চালাতে তাদের এই আয়োজন।

তবে শেষমেশ চলতি বছরের গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের ঘোষণা দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এরপর আজ রবিবার পর্যন্ত দেশ দুইটির মধ্যে সংঘাত ২০০ দিনে গড়িয়েছে।
প্রথমদিকে পুতিন চেয়েছিলেন কয়েক সপ্তাহের মধ্যে ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভ দখল করে নিবেন। সেখানে প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিকে হটিয়ে নিজেদের পছন্দের সরকারকে ক্ষমতায় বসাবেন।
তবে পশ্চিমাদের সরবরাহকৃত অস্ত্র ও ইউক্রেনের বাহিনীর তুমুল লড়াইয়ের মুখে মার্চের দিকে কিয়েভ থেকে পিছু হটে রুশ বাহিনী। একপ্রকার ব্যর্থ হয় পুতিনের প্রাথমিক লক্ষ্য।

এরপর দেশটির বাহিনীর পক্ষ থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়, তারা ইউক্রেনের পুরো দক্ষিণ ও পূর্ব দিক দখল করে নিবেন। এই নিয়ে দেশটির সেনাবাহিনী ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে তাদের সেনা ও সরঞ্জাম মজুদ করে। শুরু করে নতুন করে ইউক্রেনের বিরুদ্ধে জোরালো লড়াই।

তবে গতকাল শনিবারে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউক্রেনের শক্তিশালী আক্রমণের মুখে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় প্রধান শহরগুলো থেকে পিছু হটছে রাশিয়ান বাহিনী।

ইউক্রেনের কর্মকর্তারা বলেন, শনিবার সেনারা কুপিয়ানস্কে প্রবেশ করেছে। রুশ বাহিনীর জন্য পূর্বাঞ্চলে এটি ছিল একটি গুরুত্বপূর্ণ সরবরাহ কেন্দ্র। ইজিয়াম দখলের দাবি করেছে দেশটি।

দখলকৃত এলাকাগুলোতে ইউক্রেনের বাহিনী যে পতাকা উত্তোলন করেছে তার ভিডিও দেশটির বাহিনীর পক্ষ থেকে শেয়ার করা হয়েছে।

ইউক্রেন বাহিনীর সাফল্যের কথা দাবি করেছে যুক্তরাজ্যও। দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায়
বাহিনী খারকিভ অঞ্চলে উল্লেখযোগ্য অর্জন চালিয়ে যাচ্ছে।

এছাড়া ইউক্রেনের সেনাপ্রধান ভ্যালেরি জালুজনি বলেন, ইউক্রেনের বাহিনী খারকিভ থেকে উত্তরে ৫০ কিলোমিটার অগ্রসর হয়েছে। একই অঞ্চলে এখন তারা উত্তর ও দক্ষিণ দিকে অগ্রসরের চেষ্টা চালাচ্ছে।

তবে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, তাদের সেনারা ‘পুনঃসংগঠিত হতে’ ইজিউম থেকে পিছু হটেছে।

অন্যদিকে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি শনিবার এক ভিডিও ভাষণে তার বাহিনীর সাফল্যের কথা দাবি করেছেন। তিনি বলেন, এই মাসের শুরুতে ইউক্রেন বাহিনী পাল্টা আক্রমণ শুরু করার পর থেকে রাশিয়ার কাছ থেকে দুই হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকা মুক্ত করা হয়েছে।

এছাড়া আজ রবিবার এক টেলিগ্রাম পোস্টে জেলেনস্কি বলেন, রুশ বাহিনীর কাছে দখলকৃত খারকিভের চকালোভস্ক এলাকাও স্বাধীন করেছে ইউক্রেন বাহিনী।

জেলেনস্কি আরও বলেছেন, যুদ্ধের মোড় কোন দিকে গড়াবে এর পরবর্তী তিন মাস অনেক গুরুত্বপূর্ণ হবে। তাই পুতিনের দ্বিতীয় লক্ষ্যও কি ব্যর্থতায় পরিণত এই প্রশ্ন জোরালো হচ্ছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ   রিপু /প্রতিদিনের পোস্ট


এ জাতীয় আরো সংবাদ

Warning: Undefined variable $themeswala in /home/khandakarit/pratidinerpost.com/wp-content/themes/newsdemoten/single.php on line 229

Warning: Trying to access array offset on value of type null in /home/khandakarit/pratidinerpost.com/wp-content/themes/newsdemoten/single.php on line 229